বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ০১:৫৪ অপরাহ্ন

প্রতিবেশীর জায়গা দখলের চেষ্টা! প্রতিবাদ করায় প্রাণ নাশের হুমকী!

তানভীর আহমেদ / ৯৭ বার
আপডেট : রবিবার, ২৯ অক্টোবর, ২০২৩
প্রতিবেশীর জায়গা দখলের চেষ্টা! প্রতিবাদ করায় প্রাণ নাশের হুমকী!

তানভীর আহমেদ:- ঢাকা জেলার ডেমরা থানাধীন দেইল্লা মৌজার উর্মি গামের্ন্সের পশ্চিমে মোঃ নূর ইসলাম গং এর ১৯৯৩ সালে ক্রয় করা জমির সীমারা প্রচীর ভেঙ্গে জমিতে থাকা ফলজ ও বনজ শতাধিক গাছ কেটে ফেলে সিদ্দিকুর রহমান পাঠান (৪২) পিতা আব্দুর রউফ পাঠান, মোঃ আরিফ (৩৩) পিতা মোঃ নুরুল ইসলাম খান, মোঃ বোরহান উদ্দিন সিকদার(৪৫) পিতা একেএম রেহান উদ্দিন ও তার লোকজন। এরপর প্রাচীরের ইট চুরি করে নিয়ে যায় তারা।

জানা যায়, ৪/৫ মাস আগে সীমানা নিয়ে দ্বন্দের জেরে একটি শালিস দরবার করে স্থানীয়রা। কিন্তু প্রতিপক্ষ তা মানেনি। নূর ইসলাম গং এর ৮.২৫ শতাংশ জমির দলিলে হালট বাদে জায়গার কথা উল্লেখ থাকলেও প্রতিপক্ষ বলছে হালট সহ দক্ষিণের জায়গা বুঝে নিয়ে উত্তরের জায়গা ছেড়ে দিতে হবে। এ সকল দ্বন্দের জেরে ইতিপূর্বে গত জুন মাসেও একবার ভুক্ত ভোগীর সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে ফেলে প্রতিপক্ষ।

সর্বশেষ অক্টোবর মাসের ২৪ তারিখ রাতে ঘটনার পূর্ণরাবৃত্তি ঘটায় তারা। এ সকল বিষয়ে প্রতিবাদ করতে গেলে নূর ইসলাম ও তার ছেলে হাবিবুর রহমানকে অকথ্য ভাষায় গালি গালাজসহ প্রাণ নাশের হুমকী দেয় আরিফ ও তার লোকজন। এ ঘটনার পর থেকে ভুক্তভোগীরা আতঙ্কে রয়েছে।

এ ব্যাপারে মুঠোফোনে আরিফ প্রতিদিনের বার্তাকে বলেন, ১ মাস ধরে আমার ভাইয়ের জমি সংক্রান্ত বিষয়ে কোন খোঁজ খবর রাখিনা। আর রাখবোও না। এটা তাদের বিষয়।

উল্লেখ্য, এ ঘটনায় গত ২৫ অক্টোবর ডেমরা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন নূর ইসলাম। এর আগে শান্তি বজায় রাখার সার্থে ১৪৫ ধারায় কোর্টে একটি মামলা করেন তিনি। বর্তমানে মামলাটি চলমান রয়েছে।

এ ব্যাপারে, ডেমরা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, জহিরুল হোসেন প্রতিদিনের বার্তাকে বলেন, ঘটনার তদন্ত করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


এ জাতীয় আরো সংবাদ