বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১০:১০ পূর্বাহ্ন

নবীনগরে নবজাতক খুনের ঘটনায় ফেঁসে যাচ্ছেন মা

নবীনগর প্রতিনিধি / ১৬৫ বার
আপডেট : রবিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২৩
নবীনগরে_নবজাতক_খুনের_ঘটনায়_ফেঁসে_যাচ্ছেন_মা

নবীনগর উপজেলা প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে নবজাতক শিশু সন্তানকে পুকুরের পানিতে ফেলে খুনের দায়ে মামলার সাক্ষী থেকে আসামি হচ্ছেন মা। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বিদ্যাকুট গ্রামে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বিদ্যাকুট গ্রামের মৃত জলিল মিয়ার ছেলে দুবাই প্রবাসী অলি উল্লাহর স্ত্রী রুমা বেগম শুক্রবার রাতে তার বড় মেয়ে খাদিজা (৬) ও ৪ মাস বয়সী অপর কন্যাসন্তান ফাতেমা’কে সাথে নিয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন। মানসিক যন্ত্রণা থেকে রাত ২টার দিকে ঘুম থেকে উঠে টয়লেটে যাওয়ার নাম করে ছোট সন্তান ফাতেমাকে বুকে নিয়ে বাড়ির পাশের পুকুরে ফেলে দিয়ে ঘরে এসে আবারো ঘুমিয়ে যান। ভোর রাত ৫টায় ঘুম থেকে জেগে দেখেন পাশে তার শিশু সন্তান ফাতেমা নেই। সন্তান পাশে না থাকায় রুমা বেগমের আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসেন। পরে তার পরিবারসহ প্রতিবেশীরা শিশুটিকে আশেপাশে অনেক খোঁজাখুঁজির পর তাদের বাড়ির পাশের একটি পুকুরে শিশুটির লাশ ভাসতে দেখে ৯৯৯ কল দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা মর্গে পাঠায়।

৪ মাসের শিশু ফাতেমা কিভাবে ঘর থেকে পুকুরের পানিতে গেলো বিষয়টি রহস্যজনক বলে মনে করেন এলাকাবাসী। প্রাথমিকভাবে পুলিশও ধারণা করে এটি একটি হত্যাকাণ্ড। সে কারণে নিহত ফাতেমার মা রুমা বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়। কয়েক ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রুমা বেগম তার সন্তানকে হত্যার দায় প্রাথমিকভাবে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন।

নবীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মাহবুব আলম জানান, শিশু ফাতেমার খুনের ঘটনায় শনিবার (২২ অক্টোবর) নিহতের মা রুমা বেগমকে ১নং সাক্ষী ও অজ্ঞাতনামা আসামি দিয়ে চাচা দেলোয়ার হোসেন নবীনগর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। ওই এজাহারে বাদি উল্লেখ করেছেন- রুমা বেগম মানসিকভাবে অসুস্থ।

ওসি আরো বলেন, কন্যা সন্তান নিয়ে পারিবারিক অশান্তি ও বনিবনা না হওয়ায় মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে তিনি শিশুটিকে পানিতে ফেলে হত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। রুমা বেগমের জবানবন্দী নেয়ার জন্য তাকে রোববার বিজ্ঞ আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আজ আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দী দেন রোমা বেগম।


এ জাতীয় আরো সংবাদ