মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১:২৪ অপরাহ্ন

নবীনগরে চলে না ১ টাকা ও ২ টাকার কয়েন!

নবীনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি / ৪১ বার
আপডেট : বুধবার, ১৫ নভেম্বর, ২০২৩
নবীনগরে চলে না ১ টাকা ও ২ টাকার কয়েন!

নবীনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে দীর্ঘ দিন যাবত ১ টাকা ও ২ টাকা মূল্যের কয়েন (ধাতব মুদ্রা) অচল। দীর্ঘ দিন ধরে নবীনগরে ১ টাকা ও ২ টাকার কয়েন অচল থাকায় এখন নবীনগরে প্রায় দেখা মেলে না ১ টাকা ও ২ টাকা মূল্যের কয়েনের। এতে দুভোর্গ পোহাতে হচ্ছে নবীনগরের ক্রেতা-বিক্রেতাদের।

ভিক্ষুকও এখন ১ টাকা ও ২ টাকা মূল্যের কয়েন নিচ্ছেন না। নবীনগর উপজেলা সংলগ্ন পাশবর্তী মুরাদনগর উপজেলা, বাঞ্চারামপুর উপজেলা, কসবা উপজেলা ও রায়পুরা উপজেলায় ১ টাকা ও ২ টাকা মূল্যের কয়েন চললেও নবীনগরে অচল।

তাছাড়া নবীনগর উপজেলাস্থ ব্যাংক গুলোতে প্রথম দিকে ১ টাকা ও ২ টাকার কয়েন নিতে অস্বীকৃতি জানালে ব্যবসায়ীদের মাঝে হতাশা সৃষ্টি হয়েছিল। ১ টাকা ও ২ টাকার কয়েনের অযুহাতে নবীনগরে অপশক্তিরা জিইয়ে উঠে এবং সাধারণ মানুষের মাঝে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করে।

সেই থেকে ১ টাকা ও ২ টাকা কয়েন নিয়ে প্রায়ই নবীনগরে ক্রেতা ও ব্যবসায়ীদের মাঝে কথা কাটাকাটি ও ঝগড়াও গড়িয়েছিল। এর পর থেকে এখন পর্যন্ত নবীনগরে ১ টাকা ও ২ টাকার কয়েন অচল।

এতে কয়েক কোটি টাকা লোকসান হয়েছে নবীনগরের সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীদের। এখন প্রায় ১ টাকা ও ২ টাকার কয়েন রাস্তা-ঘাটে পড়ে থাকতে দেখা যায়। অন্যান্য অঞ্চলের মানুষ নবীনগর উপজেলায় এসে পড়ছেন বিপাকে। অনেকে আবার নবীনগর থেকে ১ টাকা ও ২ টাকার কয়েন স্বল্প মূল্যে বা অর্ধেক দামে কিনে পাশবর্তী উপজেলায় গিয়ে লেনদেন করছেন।

ফল বাজার ব্যবসায়ী সোহেল মিয়া প্রতিদিনের বার্তাকে জানান, অহন ১ টেহা ও ২ টেহার পুইসা চলে না, এতে কইরা কাস্টমারের লগে অনেক সম কতা কাডাকাডি। নবীনগর বড় বাজারের মুদি দোকানি চান মিয়া প্রতিদিনের বার্তাকে জানান, আগে ব্যাংকে ১ টেহা ও ২ টেহা পুইসা নিতো অহন নেনা যেই কারনে আমরা নিই না।

শরিফ নামে একজন ক্রেতা বলেন, এখন ৯/৪ টাকার দামের কোন কিছু কিনলে দোকানিরা ১০/৫ টাকা রেখে দেয়। ১ টাকা ফেরত দিতে চায় না। দোকানিরা বলে যে ১ টাকা নাকি অচল। অথবা আমি যদি দুই টাকার নোট ৪ টি দিয়ে সাথে ১ টাকার একটি কয়েন দেই তাহলে তারা পণ্য বিক্রি করতে চায় না। নবীনগরের সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে ব্যবসায়ীরা দীর্ঘ দিন যাবৎ কয়েন সমস্যায় ভুগলেও প্রতিকার পাচ্ছেন না কেউ।

সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীরা মনে করেন, ব্যাংকগুলোতে যদি ১ টাকা ও ২ টাকার কয়েন নিতো এবং স্থানীয় প্রশাসন নজর দিলে এর থেকে উপকৃত হতাম। দ্রুত নবীনগরের কয়েন সমস্যার সমাধানের জন্য অর্থ মন্ত্রণালয় ও সরকারের হস্তক্ষেপ চাচ্ছেন নবীনগরবাসী।


এ জাতীয় আরো সংবাদ