প্রতিবন্ধিতার জন্য কেউ যেন বৈষম্যের শিকার না হন : রাষ্ট্রপতি

রংপুর

ঢাকা ব্যুরো.

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, শারীরিক প্রতিবন্ধিতার জন্য কেউ যেন বৈষম্যের শিকার না হন তা নিশ্চিত করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব। ‘বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবস’ উপলক্ষে গতকাল বুধবার এক বাণীতে তিনি এ কথা বলেন। সারা বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশেও ’বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবস-২০২০’ উদযাপিত হচ্ছে জেনে তিনি সন্তোষ প্রকাশ করেন। বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবসে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ব্যক্তিসহ দেশের সকল প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীকে রাষ্ট্রপতি আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিকভাবে বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবস পালন দৃষ্টি প্রতিবন্ধী মানুষকে সমাজের মূল স্রোতধারায় একীভূতকরণের ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রয়াস। সাদাছড়ি দৃষ্টি প্রতিবন্ধী মানুষের চলাচলের জন্য শুধু একটি সহায়ক উপকরণই নয় এটি তাদের পরিচিতির প্রতীক, স্বাধীনভাবে ও নির্বিঘেœ পথ চলার সহায়ক শক্তি। এ বছরে দিবসটির প্রতিপাদ্য ‘সাদাছড়ির উন্নতি-দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অগ্রগতি’ দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জীবনমান উন্নয়নে করণীয় বিষয়ে সবার মাঝে বার্তা ছড়িয়ে দেবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। আবদুল হামিদ বলেন, প্রতিবন্ধিতা কোনো রোগ নয় কিংবা তারা সমাজের কোন বোঝা নন। তাদের যথার্থ সেবা, শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও সহায়ক উপকরণ প্রদান নিশ্চিত করা গেলে তারাও সমাজের আর দশ জন মানুষের মতো জাতীয় অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম। তিনি বলেন, শারীরিক প্রতিবন্ধিতার জন্য কেউ যেন বৈষম্যের শিকার না হন তা নিশ্চিত করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব। এই বাস্তবতাকে স্মরণ করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুব রহমান স্বাধীনতার পর পরই বাংলাদেশের সংবিধানের ২৮(১) ধারায় জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে দেশের সকল নাগরিকের জন্য সমান অধিকার নিশ্চিত করেছেন। অন্যদিকে সংবিধানের ১৫(৪) ধারায় অসুস্থ, প্রতিবন্ধী, বিধবা, এতিম ও বয়স্ক জনগোষ্ঠীর জন্য সামাজিক নিরাপত্তা প্রদানের নিশ্চয়তা প্রদান করা হয়েছে। দৃষ্টি প্রতিবন্ধী মানুষের সুস্থ-স্বাভাবিক জীবনযাপন নিশ্চিত করতে রাষ্ট্রের পাশাপাশি সামাজিকভাবে আমাদের সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। রাষ্ট্রপতি আশা করেন সাধারণ মানুষের মধ্যে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী মানুষের অধিকার বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি করতে বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবস সহায়ক ভূমিকা রাখবে। তিনি বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবসের সাফল্য কামনা করেন। সূত্র : বাসস

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *