ঠাকুরগাঁওয়ে আগাম আমন ধানে কৃষকের মুখে হাসি

রংপুর

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি.

ঠাকুরগাঁও জেলায় আগাম আমন ধানে কৃষকের মুখে হাসি। আগাম জাতের ধান কাটতে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকরা। ঠাকুরগাঁও  জেলায় শুরু হয়েছে আগাম ধান কাটার উৎসব। সাধারণত অগ্রহায়ণ মাসে আমন ধান কৃষকের ঘরে ওঠে। কিন্তু এবার অনেক কৃষক আগাম জাতের আমন ধান আবাদ করেছেন। এরই মধ্যে সেসব ক্ষেতের ধান কাটা শুরু হয়েছে। পোকার আক্রমণ আর নানা রোগবালাইয়ের পরও এবার আমনের বাম্পার ফলন পাচ্ছেন কৃষকরা। বর্তমানে ধানের মূল্য বেশি থাকায় লাভবান হওয়ার আশায় মুখ ভরা হাসি নিয়ে আগাম জাতের আমন ধান কাটা ও মাড়াইয়ের কাজে ব্যস্ত এ জেলার কৃষকেরা। কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, ঠাকুরগাঁও জেলার ৫টি উপজেলায় আমন মৌসুমে ১ লাখ ৩৪ হাজার ৭শ’ হেক্টর জমিতে বিভিন্ন জাতের আমন ধানের চাষ হয়েছে। এর মধ্যে দেশীয় উদ্ভাবিত স্বল্প জীবনকালের ধান বিনা-৭, ব্রি ধান ৩৩ ও বিভিন্ন প্রকার উচ্চ ফলনশীল হাইব্রিড ধানের চাষ হয়েছে মোট আবাদের শতকরা ১০ ভাগ অর্থাৎ ১৩ হাজার ২৬০ হেক্টর। ঠাকুরগাঁও জেলার সদর উপজেলার শীবগঞ্জ গ্রামের কয়েকজন কৃষক জানান, এ মৌসুমে ৮ বিঘা জমিতে বিনা-৭ জাতের ধানের চাষ করেছি। বিঘা প্রতি ২২ থেকে ২৩ মণ ফলন হচ্ছে। গত বছরও একই জমিতে একই জাতের ধানের চাষ করে ফলন কম পেয়ে কম দামে বিক্রি করেছিলাম। এ বছর ফলন কিছুটা বেশি, দামও বেশি। ঠাকুরগাঁও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আফতাব বলেন, আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় চাষিরা ভাল ফলন পাচ্ছেন। বর্তমানে বাজারে ধানের দাম বেশি। কৃষকরা যদি দেরিতে ধান বিক্রি করে তাহলে আরও ভালো দাম পাবেন।

 

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *